কিভাবে তায়াম্মুম করা যায়, তায়াম্মুমের নিয়ত, নিয়ম, ফরজ এবং সুন্নত | kivhabe thayammum kora jay, taymmum r niyut, niyum, foroz and sunnah


কিভাবে তায়াম্মুম করা যায়, তায়াম্মুমের নিয়ত, নিয়ম, ফরজ এবং সুন্নত


যে যে বস্তু দ্বারা ও কিভাবে তায়াম্মুম করা যায়, তায়াম্মুমের নিয়ত, নিয়ম, ফরজ এবং সুন্নত


আসসালামুয়ালাইকুম, প্রিয় বন্ধুরা সবাই কেমন আছেন? আশা করি আল্লাহর রহমতে বেশ ভালোই আছেন। আমিও আল্লাহর রহমতে ভালই আছি। বন্ধুরা আজকে আমি আপনাদের সামনে হাজির হলাম গুরুত্বপূর্ণ কিছু বিষয় নিয়ে আর সেই বিষয়গুলো হল তায়াম্মুমের নিয়ত, নিয়ম, ফরয এবং সুন্নত যে যে বস্তু দ্বারা তায়াম্মুম করা যায় কিভাবে তায়াম্মুম করতে হয় তার বিস্তারিত নিম্নে দেওয়া হয়েছে। সেগুলো হলোঃ তায়াম্মুমের নিয়ম,  তায়াম্মুমের ফরজ, তায়াম্মুমের সুন্নত,  তাইমুমের নিয়ম , তায়াম্মুমের নিয়ত,  কি কি বস্তু দ্বারা তায়াম্মুম করা যায়, কিভাবে তায়াম্মুম করতে হয়


যে যে বস্তু দ্বারা তায়াম্মুম করা যায়ঃ-

পবিত্র শুকনা মাটি দ্বারা তায়াম্মুম করা উত্তম। তবে মাটি না পেলে মাটি জাতীয় বস্তু। 

যেমনঃ বালি, পাথর, চুন, সুরকী, ইট, হরিতাল, সুরমা ইত্যাদি বস্তু দ্বারাও তায়াম্মুম করা জায়েয আছে৷এক কথায় মাটির তৈরি যে কোন পাত্র।

যথাঃ থালা, বাটি হাঁড়ি, পাতিল, মটকা দ্বারা তায়াম্মুম জায়েয। এছাড়া অন্য কোন কিছু দ্বারা জায়েয নয়। 

তায়াম্মুম করার নিয়তঃ

উচ্চারনঃ নাওয়াইতুআন আতাইয়াম্মামা লি রাফয়িল হাদাছি ওয়া ইস্তিবাহাতাল লিচ্ছালাতি ওয়া তাকাররুবান ইলাল্লাহি তা'আলা। 

অর্থঃ নাপাকী দূর করে সঠিকভাবে নামায আদায় করার জন্য এবং আল্লাহর নৈকট্য লাভ করার উদ্দেশ্যে আমি তায়াম্মুমের নিয়তে করলাম।

তায়াম্মুম কিভাবে করকে হয়ঃ

অতঃপর বিসমিল্লাহ বলে তায়াম্মুম করার বস্তুর উপর হাত মারবে এবং যদি ধুলা বালি বেশি মনে হয়, তাহলে এক হাত অন্য হাতের কব্জির উপর ঝাড়া মেরে পরে অযু করতে যে পরিমাণ মুখ মণ্ডল ধৌত করা হয় ঠিক ততটুকু জায়গা একবার মুছে নিবে। দ্বিতীয় বার একইভাবে হাত মেরে হস্তদ্বয়ের কনুই পর্যন্ত একবার মুছে নিবে৷ স্মরণ রাখবে, এতে যেন তিল পরিমাণ জায়গাও বাদ না যায়। এরপর দুই হাতের আঙ্গুলগুলো খেলাল করে নিবে।

 তায়াম্মুমের ফরযঃ

১। তায়াম্মুমের উদ্দেশ্যে নিয়তে করা। 

২। সমস্ত মুখ মণ্ডল একবার মাসেহ করা।

৩। হস্তদ্বয়ের কনুই পর্যন্ত একবার মাসেহ করা।

তায়াম্মুমের সুন্নাতঃ

১। বিসমিল্লাহ বলে তায়াম্মুম শুরু করা।

২। তায়াম্মুমের বস্তুর উপর হাত রাখার সময় আঙ্গলগুলো ফাক করে রাখা।

৩। দুই হাত তায়াম্মুমের বস্তুর উপর রেখে সামনে পিছনে টানা।

৪। তায়াম্মুমের বস্তুর উপর থেকে হাত উঠিয়ে মৃদুভাবে ঝেড়ে নেয়া৷

৫। তরতীব মতে (অর্থাৎ) প্রথমে নিয়াত করা, তারপর মুখ মণ্ডল মাসেহ করা, অতঃপর দুই হাতের কনুই পর্যস্ত মাসেহ করে তায়াম্মুম করা৷ ৬। খুব দ্রুততার সাথে মাসেহ কাজ শেষ করা।


বিঃদ্রঃ কোনো ভুল হলে কমেন্টে জানাবেন। 


টাগঃ তায়াম্মুমের নিয়ত তাইমুমের ফরজ তাইমুমের সুন্নত কি কি দিয়ে তায়াম্মুম করা যায় তায়াম্মুমের নিয়ম যে যে বস্তু দ্বারা তায়াম্মুম করা যায় তায়াম্মুম কিভাবে করতে হয়

0/Post a Comment/Comments

chrome-extension://oilhmgfpengfpkkliokdbjjhiikehfoo/img/semstorm-32.png