সূরা কাওসার আরবি ইংরেজি বাংলা অনুবাদ অর্থ উচ্চারণ সহ শানে নুযুল এবং ফজিলত Shura Nujul and Fazilat with Arabic Bengali translation of Surah Kawsar |

 

সূরা কাওসার আরবি ইংরেজি বাংলা অনুবাদ অর্থ উচ্চারণ সহ শানে নুযুল এবং ফজিলত Shura Nujul and Fazilat with Arabic Bengali translation of Surah Kawsar |

সূরা কাওসার আরবি ইংরেজি বাংলা অনুবাদ অর্থ উচ্চারণ সহ শানে নুযুল এবং ফজিলত Shura Nujul and Fazilat with Arabic Bengali translation of Surah Kawsar |


আসসালামুয়ালাইকুম, প্রিয় বন্ধুরা সবাই কেমন আছেন? আশা করি আল্লাহর রহমতে ভালই আছেন। আমি আলহামদুলিল্লাহ আল্লাহর রহমতে ভালই আছি। বন্ধুরা আজকে আমি আপনাদের সামনে একটি গুরুত্বপূর্ণ বিষয় নিয়ে হাজির হয়েছি। বিষয়টি হলো সূরা কাওসার আরবি ইংরেজি বাংলা অনুবাদ অর্থ উচ্চারণ সহ শানে নুযুল এবং ফজিলত । এখানে আপনারা যা জানতে পারবেন তা হচ্ছেঃ সূরা কাওসার, সূরা কাওসার বাংলা অর্থ সহ,সূরা কাওসার তাফসীর,সূরা কাওসার বাংলা উচ্চারণ,সূরা কাওসার এর শানে নুযুল,সূরা কাওসার বাংলা অর্থসহ,সূরা কাওসার সূরা কাওসার,সূরা কাওসার কোথায় অবতীর্ণ হয,সূরা কাওসার এর ফজিলত,সূরা কাওসার ফজিলত। নিম্নে সূরা কাওসার আরবি ইংরেজি বাংলা অনুবাদ অর্থ উচ্চারণ সহ শানে নুযুল এবং ফজিলত ও আরও বিভিন্ন তথ্য জানানো হয়েছে। 


                   সূরা কাওসার

              بِسمِ اللَّهِ الرَّحمٰنِ الرَّحيمِ

          বিসমিল্লাহির রাহমানির রাহিম

     শুরু করছি আল্লাহর নামে যিনি পরম                          করুণাময়, অতি দয়ালু


[1] إِنّا أَعطَينٰكَ الكَوثَرَ

[1] ইন্না য় আ’ত্বোয়াইনা-কাল্ কাওর্ছার।

[1] নিশ্চয় আমি আপনাকে কাওসার দান করেছি।

[1] Verily, We have granted you (O Muhammad (SAW)) Al-Kauthar (a river in Paradise);


[2] فَصَلِّ لِرَبِّكَ وَانحَر

[2] ফাছোয়াল্লি লিরব্বিকা ওয়ার্ন্হা।

[2] অতএব আপনার পালনকর্তার উদ্দেশ্যে নামায পড়ুন এবং কোরবানী করুন।

[2] Therefore turn in prayer to your Lord and sacrifice (to Him only)


[3] إِنَّ شانِئَكَ هُوَ الأَبتَرُ

[3] ইন্না শা য় নিয়াকা হুওয়াল্ আর্ব্তা।

[3] যে আপনার শত্রু, সেই তো লেজকাটা, নির্বংশ।

[3] For he who hates you (O Muhammad (Peace be upon him)), he will be cut off (from every posterity good thing in this world and in the Hereafter).

_-_-_-_-_-_-_-_-_-_-_-_-_-_-_-_-_-_-_-_-_-_

                        শানে নুযূল 

ইবনে আব্বাস রাদিয়াল্লাহু 'আনহুমা বলেন, ‘কাউসার’ সেই অজস্র কল্যাণ যা আল্লাহ তা'আলা রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লামকে দান করেছেন। ইকরিমা বলেন, এটা নবুওয়ত, কুরআন ও আখেরাতের সওয়াব। অনুরূপভাবে, কাউসার জান্নাতের একটি প্রস্রবনের নাম। এ তাফসীরসমূহে কোন বিরোধ নেই; কারণ, কাউসার নামক প্রস্রবনটি অজস্র কল্যাণের একটি। আসলে কাউসার শব্দটি এখানে যেভাবে ব্যবহৃত হয়েছে তাতে এক শব্দে এর পূর্ণ অর্থ প্রকাশ করা সম্ভব নয়। এ শব্দটি মূলে কাসরাত ð থেকে বিপুল ও অত্যধিক পরিমাণ বুঝাবার অর্থে ব্যবহৃত হয়েছে। এর আভিধানিক অর্থ হচ্ছে, সীমাহীন আধিক্য। কিন্তু যে অবস্থায় ও পরিবেশে শব্দটি ব্যবহার করা হয়েছে তাতে শুধুমাত্র আধিক্য নয় বরং কল্যাণ ও নিয়ামতের আধিক্য এবং এমন ধরনের আধিক্যের ধারণা পাওয়া যায় যা বাহুল্য ও প্রাচুর্যের সীমান্তে পৌঁছে গেছে। আর এর অর্থ কোন একটি কল্যাণ বা নিয়ামত নয় বরং অসংখ্য কল্যাণ ও নিয়ামতের আধিক্য, যার মধ্যে একটি হল জান্নাতের প্রস্রবন। [ইবন কাসীর] 

=============================

                      ফজিলত                

সূরা কাউসার হচ্ছে দোজাহানের অফুরন্ত কল্যাণের সুখবর! এই সূরা হতে জানা যায় হাউজে কাউসার সম্পর্কে, যা কিয়ামতের মাঠে মহানবী সাল্লাল্লাহু আলাইহে ওয়াসাল্লামকে প্রদান করা হবে। হজরত আনাস রাদিয়াল্লাহু আনহু হতে বর্ণিত, একদিন মসজিদে নবীজি সাল্লাল্লাহু আলাইহে ওয়াসাল্লাম আমাদের সামনে উপস্থিত হলেন। হঠাৎ মহানবীর (সা.) মাঝে তন্দ্রা অথবা একধরনের অচেতনতার ভাব দৃশ্যমান হলো। এরপর নবীজি (সা.) হাসিমুখে মস্তক উত্তোলন করলেন। আমরা জিজ্ঞেস করলাম, 'ইয়া রাসূলুল্লাহ! আপনার হাসির কারণ কী?’ তিনি বললেন, ‘এই মুহূর্তে আমার নিকট একটি সূরা অবতীর্ণ হয়েছে’। অতঃপর তিনি বিসমিল্লাহসহ সূরা কাউসার পাঠ করলেন এবং বললেন, 'তোমরা জান, কাউসার কী?’ আমরা বললাম, 'আল্লাহ তায়ালা ও তাঁর রাসূল ভালো জানেন'। তিনি বললেন, ‘এটা জান্নাতের একটি নহর। আমার পালনকর্তা আমাকে এটা দেবেন বলে ওয়াদা করেছেন। এতে অজস্র কল্যাণ আছে এবং এই হাউজে কেয়ামতের দিন আমার উম্মত পানি পান করতে যাবে। এর পানি পান করার পাত্র সংখ্যা আকাশের তারকাসম হবে। তখন কতক লোককে ফেরেশতাগণ হাউজ থেকে হটিয়ে দেবে। আমি বলবো, পরওয়ার-দেগার, সে তো আমার উম্মত। আল্লাহ তায়ালা বলবেন, আপনি জানেন না, আপনার পরে সে কী নতুন মত ও পথ অবলম্বন করেছিল?’ (হাদিসে সহিহ বোখারি, মুসলিম শরিফ, আবু দাউদ, নাসায়ী)। ফজিলত পূর্ণ এই সূরা আল কাউসার পাঠের অন্যতম একটি ফজিলত হচ্ছে এটি পাঠে শত্রুর অনিষ্ট হতে মহান আল্লাহ তায়ালা আমাদের রক্ষা করে থাকেন।

 বিঃদ্রঃ কোনো ভুল হলে কমেন্টে জানাবেন সঠিক করবো ইনশাআল্লাহ। 

ট্যাগঃ সূরা কাওসার,সূরা কাওসার বাংলা অর্থ সহ,সূরা কাওসার তাফসীর,সূরা কাওসার বাংলা উচ্চারণ,সূরা কাওসার এর শানে নুযুল,সূরা কাওসার বাংলা অর্থসহ,সূরা কাওসার সূরা কাওসার,সূরা কাওসার কোথায় অবতীর্ণ হয,সূরা কাওসার এর ফজিলত,সূরা কাওসার ফজিলত।


0/Post a Comment/Comments

Previous Post Next Post
আমাদের ফেসবুক পেইজে যুক্ত হতে ক্লিক করুন
chrome-extension://oilhmgfpengfpkkliokdbjjhiikehfoo/img/semstorm-32.png