খোলা চিঠি লেখার নিয়ম, প্রধানমন্ত্রীর কাছে খোলা চিঠি।

 খোলা চিঠি লেখার নিয়ম

খোলা চিঠি লেখারনিয়ম / khula citi likar niyom, 

আসসালামু আলাইকুম প্রিয় পাঠক বৃন্দ কেমন আছেন সবাই আশাকরি আল্লাহর দয়ায় সবাই ভাল আছেন আলহামদুলিল্লাহ। আজ আমরা আপনাদের জন্য গুরুত্তপূর্ণ খোলা চিঠির নিয়ম দেখাব ইনশাআল্লাহ। 

একজন মায়ের প্রধানমন্ত্রীর কাছে পাঠানো খোলা চিঠির নিয়ম। খোলা চিঠি লেখার নিয়ম 

মাননীয় প্রধান মন্ত্রী ,

যে দেশে নেত্রীতে নারী সেদেশে সব চেয়ে বেশি ধর্ষিত হয় নারী। এটা মানতে পারি না , মানাও যায় না। একটা ছোট্ট শিশু যার শরীরের অঙ্গ প্রস্ফুটিত হওয়ার আগেই সে ধর্ষিত হচ্ছে। যারা বেঁচে থাকবে কি কুৎসিত অতীত নিয়ে বড় হবে। কতটা মানসিক যন্ত্রনা সে ভোগ করবে।ছোট্ট শিশু থেকে ষাট বছরের বৃদ্ধ মহিলা পর্যন্ত এই ধর্ষনের শিকার।কিন্তু বিচারের হাহাকার। বিচার আজ সাধারনদের জন্য নয়, অন্যায়ের পক্ষে।

চান্চ্রল্যকর নুসরাত হত্যার কাহিনী কতটা মানুষের মনকে কাঁদ্য়েছে সেটা বলা বাহুল্য। অথচ সেদিন নুসরাত হত্যার আসামী পক্ষের উকিল সাংবাদিক দের বলছেন - নুসরাত আত্মহত্যা করছে”। যে দেশে ধর্ষকের পক্ষে উকিল থাকে সে দেশ কখনও ধর্ষনমুক্ত হতে পারে না।

তবে ধন্যবাদ প্রধান মন্ত্রী, ধর্ষণের সর্বোচ্চ শাস্তি মৃত্যুদন্ড দেয়ার জন্য।

মাননীয় প্রধান মন্ত্রী,

বঙ্গবন্ধুর মানস কন্যা”, যিনি এশিয়াতে শ্রেষ্ঠ নারী মন্ত্রী হিসেবে ঘোষিত, যা আমাদের গর্ব।

আপনার কাছে প্রশ্ন- আমাদের বাচ্চাদের বই পুস্তক সব জায়গায় আমাদের প্রিয় বঙ্গঁবন্ধুর ইতিহাস , যা এই প্রজন্মের সন্তানদের ইতিহাস সম্পর্কে জানতে সাহায্য করছে। বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবর রহমান আমাদের জাতির পিতা, যার নেত্রিত্বে আজ স্বাধীন বাংলাদেশ। বাংলাদেশ আওয়ামিলীগ মুক্তিযাদ্ধা চেতনায় গড়ে ওঠা একটা শক্তিশালী দল। এই দল মুক্তির চেতনায় বিশ্বাসী। অথচ আজ এই দলে কিছু আগাছার কারনে সন্তানদের

কাছে এর সম্মান তুলে ধরতে পারছি না। টিভিতে যখন দেখছে কিভাবে নিস্পাপ ছেলেটিকে সারারাত পিটিয়ে মেরেছে , তখন সন্তানদের কাছে প্রশ্ন - মা তুমি না বললে আওয়মিলীগ মুক্তি যোদ্ধাদের দল , তাহলে কেনো ওরা মানুষ মারে?

এর উত্তর কি দিব?

যেখানে পাওনা টাকা চাওয়াতে মলমুত্র খাওয়াবো পারে , এরচেয়ে পৈশাচিকতা বর্বতা কি হতে পারে আমার জানা নেই?

এটা কখনও আওয়ামিলীগের মুক্ত চেতনার আদর্শ হতে পারে না।

আমি জানি এর মধ্যে আপনি এসব শাস্তির আওতায় নিয়ে এসেছেন। কিন্তু বড্ড দেরিতে। একবার যদি যারা ক্ষমতার অপব্যবহার করে তাদের প্রতি নজর রাখতেন তাহলে আজ আওয়ামিলীগের এই দুর্দশা হতো না। আজ আমরা জনগণ হতাশ । টপুরো বাংলাদেশ আজ নিরাপত্তার ভুগছে।

আমি আমার সন্তানদের

আজ একজন প্রধানমন্ত্রীকে নয় ,

জয় এবং পুতুলের মায়ের কাছে আমরা মায়েরা সন্তানের নিরাপত্তা চাচ্ছি....

নিরাপদ শিক্ষা প্রতিষ্ঠান চাই,

ছাত্র রাজনীতি বন্ধ চাই,

নিরাপদ সড়ক চাই,

ধর্ষণ মুক্ত বাংলাদেশ চাই।

আমরা দেখলাম কিভাবে  খোলা চিঠি লিখা হয়।আপনারা গুরুত্বপূর্ণ বিষয় জানতে time of Bd এর সাথে থাকুন।  ধন্যবাদ

tag:খোলা চিঠি লিখার নিয়ম/khula citi likar niyom।

0/Post a Comment/Comments

chrome-extension://oilhmgfpengfpkkliokdbjjhiikehfoo/img/semstorm-32.png