দুঃখের মতো এত বড় পরশপাথর আর নাই ভাব সম্প্রসারণ | দুঃখের মতো এত বড় পরশপাথর আর নাই | ভাবসম্প্রসারণ

দুঃখের মতো এত বড় পরশপাথর আর নাই  ভাব সম্প্রসারণ | দুঃখের মতো এত বড় পরশপাথর আর নাই | ভাবসম্প্রসারণ



 দুঃখের মতো এত বড় পরশপাথর আর নাই 

ভাব - সম্প্রসারণ : দুঃখই সংগ্রামী জীবনের সূতিকাগার । দুঃখই শক্তি । দুঃখ মানুষের জীবনকে আগুনের মতাে পুড়িয়ে খাটি করে তােলে । দুঃখ ভােগের পরে যে সুখ আসে , সেটাই আসল , সেখানেই প্রশান্তি । সুখ ও দুঃখে মানবজীবন গঠিত । জীবন ও জগতের এক প্রান্তে রয়েছে অফুরন্ত সুখ , অন্য প্রান্তে অপরিসীম দুঃখ । নিরন্তর সুখ মানবজীবনের কর্মমুখরতা ও সংগ্রামশীলতাকে স্তব্ধ করে দেয় । জীবন থেকে দুঃখ সরিয়ে সুখ সমৃদ্ধময় জীবন গড়ে তুলতে মানুষ সচেষ্ট হয় , হয়ে ওঠে কর্মতৎপর । মানবজীবনে শ্রেষ্ঠত্ব আপনাআপনি আসে না , শ্রেষ্ঠত্বকে অর্জন করতে হয় । শ্রেষ্ঠত্ব অর্জন এক ধরনের সাধনার ফল । সে সাধনার সূতিকাগার হচ্ছে দুঃখ । দুঃখ মানবজীবনে পথের কাঁটা বটে , তবে সে কাঁটা দুহাতে সরিয়ে সুন্দর জীবন গড়ার , খাটি জীবন নির্মাণের স্পৃহা আসে দুঃখেরই ভেতর থেকে । দুঃখ পরশপাথরের মতাে । নিকৃষ্ট ধাতু যেমন পরশ পাথরের পরশে সােনা হয়ে ওঠে , তেমনি দুঃখের স্পর্শে জীবন হয়ে ওঠে খাটি । দুঃখই মানুষের ভেতরের শক্তি ও সত্তার জাগরণ ঘটায় । দুঃখে পােড় খাওয়া মানুষের মধ্যে জেগে ওঠে মনুষ্যত্ব । দুঃখ মানুষকে করে তােলে সর্বংসহা । দুঃখের তেজে মানুষের সব অহংকার গলে গিয়ে সে হয়ে ওঠে নিরহংকারী , ত্যাগী ও শ্রেষ্ঠ মানব । পৃথিবীর শ্রেষ্ঠ মানুষগুলাে দুঃখের সমুদ্রে স্নান করেই শুদ্ধ হয়েছে , দুঃখের স্পর্শেই শ্রেষ্ঠ জীবন পেয়েছে । দুঃখ মানবজীবনের এমনই এক বন্ধু , যার সংস্পর্শে সমগ্র জীবনই উজ্জ্বল প্রােজ্জ্বল হয়ে ওঠে । জীবনে দুঃখবােধ মানুষকে খাঁটি করে তােলে । শ্রেষ্ঠত্ব জীবনে এমনি এমনিই আসে না । শ্রেষ্ঠত্ব অর্জনের জন্য পরিশ্রম প্রয়ােজন । সেরূপ শ্রেষ্ঠত্ব পেতে পরিশ্রম করে তা অর্জন করতে হয় । এজন্যই বলা হয়েছে যে , দুঃখের মতাে এত বড় পরশপাথর আর নাই ।

টাগ: দুঃখের মতো এত বড় পরশপাথর আর নাই ভাব  সম্প্রসারণ, দুঃখের মতো এত বড় পরশপাথর আর নাই, ভাবসম্প্রসারণ 

0/Post a Comment/Comments

chrome-extension://oilhmgfpengfpkkliokdbjjhiikehfoo/img/semstorm-32.png