সবার উপরে মানুষ সত্য তাহার উপরে নাই ভাবসম্প্রসারণ | সবার উপরে মানুষ সত্য ভাবসম্প্রসারণ

সবার উপরে মানুষ সত্য তাহার উপরে নাই ভাবসম্প্রসারণ | সবার উপরে মানুষ সত্য ভাবসম্প্রসারণ

 
সবার উপরে মানুষ সত্য তাহার উপরে নাই ভাবসম্প্রসারণ | সবার উপরে মানুষ সত্য ভাবসম্প্রসারণ

সবার উপরে মানুষ সত্য তাহার উপরে নাই 

ভাবসম্প্রসারণ  : মহান আল্লাহ রাব্বল আলামিন তার সৃষ্টিকুলের শ্রেষ্ঠ সৃষ্টিরূপে সৃষ্টি করেছেন মানবজাতিকে । তাই সবার উপরে মানুষের মর্যাদা স্বীকার করতে হয় । মানুষকে সৃষ্টির শ্রেষ্ঠ জীব হিসেবে বিবেচনা করে তার গুরুত্ব অনুধাবন করা দরকার । প্রাশিকুলের মধ্যে মানুষের স্থান সবার উপরে । ধর্মীয় গোঁড়ামি কিংবা সাম্প্রদায়িকতার বিষবাষ্প দ্বারা আক্রান্ত হয়ে কোনাে মানুষকে খাটো করে দেখার কোনাে যৌক্তিকতা নেই । সবার উপরে তার পরিচয় হলাে সে মানুষ । জগতের সর্বত্র বিভিন্ন নীতি , আদর্শ আর বিধিনিষেধের বেড়াজালে মানবজীবন জড়িয়ে আছে । মানুষ সভ্যতার জনক কোনাে এক সময় মানুষ ছিল প্রকৃতির দাস । আর আজ সেই মানুষ নিয়ন্ত্রণ করছে প্রকৃতিকে । প্রকৃতির মায়ায় জড়িয়ে মানুষ তৈরি করছে নতুন ইতিহাস । জ্ঞান , বিদ্যাবুন্ধুি , বিবেক , মেধা ও প্রজ্ঞার অপূর্ব সমন্বয় ঘটিয়ে মানুষ আজ জয় করেছে পৃথিবীকে । উন্নত বিশ্ব আর তৃতীয় বিশ্বের মধ্যে পার্থক্য অনেক । শক্তিশালী জাতি শক্তিহীনকে গ্রাস করতে চায় । মানুষের আছে অপূর্ব উদ্ভাবনী ক্ষমতা ও অপরিসীম ইচ্ছাশক্তি । আর সেই অপরিসীম ইচ্ছাশক্তিকে কাজে লাগিয়ে মানুষ আজ জল - স্থল - অন্তরিক্ষে উড়িয়েছে তার বিজয় পতাকা । মানুষের শক্তি , জ্ঞান ও কাজের সীমা অফুরন্ত । এই যে অত্যাধুনিক সভ্যত- এ তাে মানুষেরই সভ্যতা । জগতের প্রত্যেকটি নতুন ও পুরাতন সৃষ্টির মূলে রয়েছে মানুষের অদম্য স্পৃহা ও জাগরণী শক্তি । বিজ্ঞানের এই যে নব নব আবিষ্কার তা মানুষেরই আবিষ্কার । মানুষ অসম্ভবকে করেছে সম্ভব ; দূরকে করেছে নিকট । মানুষ মহাশূন্যের রহস্য উদ্ঘাটনের জন্য সদা ব্যাপৃত । সহজ থেকে আরও সহজতর জীবনপ্রণালি খুঁজে নেওয়ার জন্য সে সদা তৎপর । কিন্তু দুর্ভাগ্য হলেও সত্য যে , মানুষ নিজেকে জাহির করার জন্য যতটা তৎপর , পরকে আপন করার জন্য ততটা তৎপর নয় । জাতিতে জাতিতে ভেদাভেদ মানুষের আজ নিত্যসঙ্গী । ধর্মকে মানুষ আজ বড় করে দেখার চেষ্টা করছে । তাদের দাবি মানুষ ধর্ম দ্বারা প্রভাব বিস্তার করতে পারলেই আদর্শ জাতি বা ধর্ম হিসেবে পরিচিতি লাভ করবে । আসলে একথা সত্য নয় । ধর্মীয় গোঁড়ামি আর নগ্ন সাম্প্রদায়িকতার বেড়াজালে আজ পৃথিবীর মানুষ বহু ধারায় বিভক্ত । এক ধর্মের মানুষ অন্য ধর্মকে খাটো করে দেখার এবং ধ্বংস করে দেওয়ার চেষ্টায় সারাক্ষণ ব্যস্ত । ধর্ম - বর্ণ - জাতি - সম্প্রদায় এক মানুষকে আড়াল করে রাখছে আর এক মানুষের কাছে । মানবতা ও মানবিকতার আদর্শ আজ ধুলায় লুষ্ঠিত । মানুষের গড়া সভ্যতা ব্যঙ্গ করছে আজ মানুষকে । পৃথিবীর দৈনন্দিন ইতিহাস পর্যালােচনা করলে আমরা দেখতে পাই শক্তিশালী জাতি দুর্বল জাতিকে কোণঠাসা করে রেখেছে । তাদের মধ্যে নেই মনুষ্যত্বের বিকাশ , নেই সৌভ্রাত্বের সেতুবন্ধ , নেই ধর্মের ঐক্য । কবির ভাষায় “ গাহি সাম্যের গান মানুষের চেয়ে বড় কিছু নেই , নহে কিছু মহীয়ান যেখানে মিশে এক হয়ে গেছে হিন্দু বৌদ্ধ মুসলিম ক্রিশ্চান । ” কবির এ অমর বাণী আমরা যদি যুগে যুগে প্রতিফলিত করার চেষ্টা করি তাহলে পৃথিবীতে সুখের স্বর্গ তৈরি হবে নিঃসন্দেহে । মানুষের উচিত সব বিভেদ ভুলে যাওয়া এবং এ পৃথিবীকে সবার জন্য এক ও অভিন্ন পৃথিবী হিসেবে গড়ে তােলা । আর সবার উপরে মানুষের মনুষ্যত্বকে মূল্যায়ন করা।

টাগঃ সবার উপরে মানুষ সত্য তাহার উপরে নাই ভাবসম্প্রসারণ, সবার উপরে মানুষ সত্য ভাবসম্প্রসারণ 

0/Post a Comment/Comments

Previous Post Next Post
আমাদের ফেসবুক পেইজে যুক্ত হতে ক্লিক করুন
chrome-extension://oilhmgfpengfpkkliokdbjjhiikehfoo/img/semstorm-32.png