রাব্বি জিদনি ইলমা দোয়া | রাব্বি জিদনি ইলমা অর্থ কি

রাব্বি জিদনি ইলমা , রাব্বি জিদনি ইলমা দোয়া, রাব্বি জিদনি ইলমা অর্থ কি , রাব্বি জিদনি ইলমা পুরো দোয়া, রাব্বি জিদনি ইলমা রাব্বি ইয়াসসির


     রাব্বি জিদনি ইলমা

    প্রিয় পাঠকবৃন্দ টাইম অফ বিডি এর পক্ষ থেকে আপনাদের সবাইকে জানাই শুভেচ্ছা ও সালাম আসসালামু আলাইকুম রাহমাতুল্লাহি ওয়া বারাকাতু। কেমন আছেন আপনারা সবাই? আশা করি সবাই ভালো আছেন আমিও রহমতে ভালো আছি। আপনারা হয়তো বিভিন্ন সোশ্যাল মিডিয়ায় রাব্বি জিদনি ইলমা দোয়া সম্বন্ধে জানতে চাচ্ছেন। আর তাই আজকে আমরা আমাদের পোষ্ট টি তৈরি করেছি। আমাদের আজকের এই পোস্টে রাব্বি জিদনি এলমা দোয়া সম্পর্কে যা যা থাকছেঃ সেগুলো হলো রাব্বি জিদনি ইলমা , রাব্বি জিদনি ইলমা দোয়া, রাব্বি জিদনি ইলমা অর্থ কি , রাব্বি জিদনি ইলমা পুরো দোয়া, রাব্বি জিদনি ইলমা রাব্বি ইয়াসসির ।আশা করছি আপনারা পুরো পোস্টটি ধৈর্য্য সহকারে পড়বেন এবং সঠিক তথ্যটি পাবেন।

    রাব্বি জিদনি ইলমা দোয়া 

     কুরআন তিলাওয়াতের আগে দুরুদ পড়া বা “রাব্বি যিদনী ইলমা” ইত্যাদি দোয়া পাঠ করা সুন্নাহ দ্বারা প্রমাণিত নয়। তাই এগুলোকে কুরআন তেলাওয়াত করার পূর্বে নিয়ম বানিয়ে সবসময় পাঠ করা ঠিক নয়।

    দুরুদ পড়া ফজিলতপূর্ণ ইবাদত, আল্লাহর কাছে জ্ঞান চাওয়ার জন্য ‘রাব্বি যিদনী ইলমা’ “হে আমার প্রতিপালক, আমার জ্ঞান বৃদ্ধি করে দাও”দোয়াটিও খুব গুরুত্বপূর্ণ। কিন্তু এগুলোকে কুরআন পড়ার পূর্বে নির্দিষ্ট করার ব্যাপারে যেহেতু কোন হাদিস বর্ণিত হয়নি সেহেতু এগুলোকে নিয়মে পরিণত করা ঠিক নয়; অন্যথায় তা বিদআত হিসেবে পরিগণিত হবে। আল্লাহ আমাদেরকে ক্ষমা করুন।

    বরং কুরআন পাঠের আগে কী পাঠ করতে হবে তা আল্লাহ তাআলা নিজেই শিক্ষা দিয়েছেন। যেমন আল্লাহ তাআলা বলেন:

    فَإِذَا قَرَأْتَ الْقُرْآنَ فَاسْتَعِذْ بِاللَّـهِ مِنَ الشَّيْطَانِ الرَّجِيم

    “অতএব, যখন আপনি কুরআন পাঠ করেন তখন বিতাড়িত শয়তান থেকে আল্লাহর আশ্রয় গ্রহণ করুন।” (সূরা আন নাহল: 98)

    অর্থাৎ “আউযুবিল্লাহিমিনাশ শায়তানির রাজীম” (আমি বিতারিত শয়তান থেকে আল্লাহর নিকট আশ্রয় প্রার্থনা করছি) পাঠ করা- এটাই সুন্নত।

    সুতরাং কুরআন পাঠ করার আগে আউযুবিল্লাহি মিনাশ শাইতানির রাজিম অতঃপর সূরার শুরু থেকে পড়লে ‘বিসমিল্লাহির রহমানির রাহীম’ (পরম করুনাময় অসীম দয়ালু আল্লাহর নামে শুরু করছি) পাঠ করবেন।

    আর সূরার মাঝখান থেকে পাঠ করলে বিসমিল্লাহ বলা-না বলা উভয়টাই শরীয়ত সম্মত।

    রাব্বি জিদনি ইলমা অর্থ কি

    রাব্বি জিদনি এলমা এর অর্থ হল হে আমার পালনকর্তা আমার জ্ঞান বৃদ্ধি করুন।

     রাব্বি জিদনি ইলমা পুরো দোয়া

    রাব্বি জিদনি ইলমা- রাব্বি

    ইয়াসসির,

    ওয়ালাতুআসসির ওয়া তাম্মিম

    আলাইনা বিল খাইর

     রাব্বি জিদনি ইলমা রাব্বি ইয়াসসির 

    "রাব্বি জিদনি ইলমা" এই কথাটার মানে জানেন?


    রাব্বি জিদনি ইলমা- রাব্বি ইয়াসসির, ওয়ালাতুআসসির ওয়া তাম্মিম আলাইনা বিল খাইর।’ 

    (হে আমার প্রভু! আপনি আমার বিদ্যা বৃদ্ধি করুন। হে আমার প্রভু! আপনি আমার জন্য বিষয়টি সহজ করে দিন, কঠিন না করুন এবং কল্যাণের সঙ্গে বিষয়টির সমাপ্তি ঘটান।)

    এবার আসি এই আরবি কথাটার মানে কি ? 

    এটার মানে " হে প্রভু তুমি আমার জ্ঞান প্রবৃদ্ধি করো"

    এই কথাটা সৃষ্টিকর্তা আমাদের নবীজিকে শিখিয়েছিলেন যখন উনি সৃষ্টিকর্তার থেকে প্রাপ্ত আসমানী আয়াত মুখস্ত করতে হিমশিম খাচ্ছিলেন. 

    আপনারা জানেন আমাদের নবীজি পড়ালেখা জানতেন না, তারপরে কোরানের অনেক আয়াত আছে বেশ বড় বড়, এগুলো মনে রাখতে উনি বিড় বিড় করে বার বার বলে মুখস্ত করতেন, 

    আর তখনি নাজিল হলো সূরা ত্বাহার 114 নম্বর আয়াত

    " সুতরাং সকল কিছুর উর্দ্ধে আল্লাহ, যিনি আসল মালিক. এবং তুমি কোরান মুখস্ত করতে তাড়াহুড়ো করোনা- সেটা সম্পূর্ণ নাজিল হওয়ার আগেই. আর বলো "রাব্বি জিদনি ইলমা""

    এখানে উল্লেখযোগ্য হচ্ছে মুখস্ত করার থেকে জ্ঞান অর্জনের দিকে সৃষ্টিকর্তার নির্দেশ. তাড়াহুড়ো করে কোনো বিষয় শুধু মুখস্ত করলে পরীক্ষায় হয়তো ভালো মার্ক পাওয়া যাবে কিন্তু প্রয়োগিক সাফল্যে ঘাটতি থাকবে.

    কিন্তু যিনি জ্ঞান অর্জন করার নিমিত্তে পড়বে, তার মুখস্ত করার বিষয়টা আল্লাহ নিজেই দেখবে.

    অতীব দুঃখের সহিত বলতে হচ্ছে আমাদের মাঝে কোরান মুখস্ত করা অনেকেই আছেন (যেটাও অনেক গুরুত্বপূর্ণ কাজ) কিন্তু কোরান এর প্রয়োগিক জ্ঞান জানা জ্ঞানীর বড়োই অভাব, সৃষ্টিকর্তা সবাইকে " রাব্বি জিদনি ইলমা" এই কথাটার অর্থ বোঝার তৈফিক দান করুন.

    Tag:রাব্বি জিদনি ইলমা , রাব্বি জিদনি ইলমা দোয়া, রাব্বি জিদনি ইলমা অর্থ কি , রাব্বি জিদনি ইলমা পুরো দোয়া, রাব্বি জিদনি ইলমা রাব্বি ইয়াসসির 

    0/Post a Comment/Comments

    chrome-extension://oilhmgfpengfpkkliokdbjjhiikehfoo/img/semstorm-32.png