Clipclaps Vodi app Clixsense থেকে কিভাবে online আয় করা যায় | কাজ না করে ইনকাম বিকাশে প্রতিদিন | ডলার ইনকাম করার উপায়

Clipclaps Vodi app Clixsense থেকে কিভাবে online আয় করা যায় | কাজ না করে ইনকাম বিকাশে প্রতিদিন | ডলার ইনকাম করার উপায়


Clipclaps থেকে আয়, vodi app দিয়ে টাকা আয়, clixsense থেকে আয়, কাজ না করে ইনকাম বিকাশে প্রতিদিন, কিভাবে online আয় করা যায় ডলার ইনকাম করার উপায়,  বাড়িতে বসে টাকা ইনকাম


    বাড়িতে বসে টাকা ইনকাম

    টাইম অফ বিডির পক্ষ থেকে আপনাদের সবাইকে জানাই শুভেচ্ছা এবং সালাম আসসালামু আলাইকুম রাহমাতুল্লাহি ওয়া বারাকাতুহু। আপনারা সবাই কেমন আছেন ? আশা করি সবাই আল্লাহর রহমতে ভাল আছেন। আমিও আল্লাহর রহমতে ভালো আছি। আপনারা অনেকেই হয়ত জানেননা ফেসবুক এবং অনলাইন থেকে বিভিন্ন উপায়ে টাকা ইনকাম করা যায়। আর তাই আজকে আমাদের পোস্টে আমরা এগুলো সম্পর্কে আলোচনা করব।আমাদের আজকের এই পোষ্ট টি তৈরি করা হয়েছে কিভাবে অনলাইন থেকে ইনকাম করা যায় এর সম্পর্কে । আমাদের আজকের এই পোস্টের যা যা থাকছে সেগুলো হলোClipclaps থেকে আয়, vodi app দিয়ে টাকা আয়, clixsense থেকে আয়, কাজ না করে ইনকাম বিকাশে প্রতিদিন, কিভাবে online আয় করা যায় ডলার ইনকাম করার উপায়, বাড়িতে বসে টাকা ইনকাম। আশা করি আপনারা পুরোো পোস্টটিি ধৈর্য সহকারে পড়বেন এবং আপনারাাাাা সঠিক তথ্যটি পাবেন।

    Clipclaps থেকে আয় 

    কোনাে রকম এড ফি ছাড়া শুধু ভিডিও দেখে, গেম খেলে ইনকাম এর সবচেয়ে সেরা এপ। পাশাপাশি রেফার করেও ভালাে পরিমানে আয় করতে পারবেন।

    প্লে ষ্টোর যাবেন। সেখানে গিয়ে সার্চ দিবেন Clipclaps I 9 a a a a sahi en up with google দিবেন। তারপর ফোন এর জিমেইল এ ক্লিক করে নাম, জেন্ডার আর ছবি দিবেন। তারপর এপ এর ভিতরে প্রবেশ করলে reward অপশন এ যাবেন সেখানে উপরের দিকে কর্নার এ redeem লেখাতে ক্লিক করে 6384805351

    এই কোড টি দিবেন। এই কোড টি দিলে সাথে সাথে 1 ডলার বােনাস পাবেন।

    মনে রাখবেন 6384805351 এই কোড টি না দিলে 1 ডলার এর বােনাস টি পাবেন না ।

    এছাড়া তখনই নিচের দিকে spin ঘুরালে 6 ডলার বােনাস পাবেন। এই এপ থেকে ১০ ডলার এ ক্যাশ আউট করতে পারবেন। ইউটিউব এর পেমেন্ট প্রুফ নিয়ে অনেক ভিডিও রয়েছে দেখতে পারেন।

    vodi app দিয়ে টাকা আয়

    যারা ইন্টারনেট ব্যবহার করেন তাদের নেট বিল আসবে ইন্টারনেট থেকেই।তাও আবার তেমন কোন কাজ না করেই। শুধু একটু বুদ্ধি খাটালেই হয়। অনেকেই imo/ massenger ইত্যাদি ব্যবহার করেন।কিন্তু যদি আপনি Vodi অ্যাপটি চালান তাহলেই হয়। কারন Vodi এমন একটি অ্যাপ যার মাধ্যমে শুধু online chat বা ভিডিও কলই করা যায় না টাকাও ইনকাম করা যায়। এই অ্যাপটিতে প্রায় কোন কাজ না করেই প্রতিদিন ৫০ টাকা থেকে ৫০০ টাকা রিচার্জ নিতে পারবেন। এই আ্যাপটিতে আগে এই সুযােগ ছিল না।নতুন ভিডিও দেখার option চালু হয়েছে যাতে প্রতিদিন ভিডিও দেখেই 60 পয়েন্ট পেয়ে যাবেন। আরও অনেক কাজ আছে যা করলে আপনি অনেক পয়েন্ট পাবেন। 616পয়েন্টস হলেই 50 টাকা রিচার্জ নিতে পারবেন অন্যের মােবাইলে ও রিচার্জ দিতে পারবেন ।আ্যাপটির নামঃ vodi app যাই হােক কাজ শুরু করা যাক। ১// play store থেকে Vodi app নামের সফটওয়ারটা নামিয়ে নিন. ২// তারপর, আপনার মােবাইল নাম্বারটা দিয়ে "Continue" এ ক্লিক করুন। // তারপর, আপনার ফোন নম্বরে একটা মেসেজ আসবে ৬ সংখ্যার

    যেটা দিয়ে ভেরিফাই করতে হবে। 8// তারপর আপনার রেফারেল কোড বসানোর অপশন আসবে সেখানে SHIHAB619 এটা দিতেই হবে। এটা দিলে আপনি ৪০ পয়েন্ট পাবেন। SHIHAB619 এই কোডটি নাদিলে আপনি কোনাে পয়েন্ট পাবেন না। (সবগুলাে বড়হাতের লিখতে হবে। তাহলে আপনি ৪০ পয়েন্ট পাবেন। ৫// তারপর, আপনার নাম এবং ইমেইল চাইলে নাম & ইমেইল দিয়ে submit/next এ চাপুন। তাহলে একাউন্ট হয়ে খােলা হয়ে যাবে। [ভুল Email দিলেও হবে] ৬// এবার আপনার আইডিটা active করে নিন। active করতে vodi থেকে আমাকে একটা কল/ মেসেজ দিন। vodi তে ঢুকে contact এ ক্লীক করুন। A205F নামে আমার আইডি পাবেন।একটা sms দিন। ব্যাস হয়ে গেল।(এটা অবশ্যই দিতে হবে) ৭// আপনার আইডি active না হলে আপনার একাউন্টে কোন পয়েন্ট পাবেন না। * এবার more অপশনে earn vodi coin এ যান।ওখানে watch a short video তে ক্লিক ভিডিও দেখলে প্রতিদিন 30 পয়েন্ট। এবার আপনার ২ জন বন্ধুকে অডিও এবং ভিডিও কল দিন। 30 করে পাবেন প্রতিদিন। বন্ধু না থাকলে আমাকে কল দিন ভােদি গ্রুপে যুক্ত করে দিব তাহলে আপনি প্রতিদিন কল দিতে পারবেন। ৬১৬ পয়েন্ট হলে ৫০ টাকা রিচার্জ করুন, অথবা ব্যাংক এ নিতে পারেন। ৬// একাউন্ট খােলার পর, আপনার রেফারেল কোড পাবেন।আর এই রেফার কোড দিয়ে আপনার বন্ধু বা অন্য কাউকে খুলে দিলে আপনি পাবেন ১০ পয়েন্টস & সে পাবে ৪০ পয়েন্ট। আর তার থেকে আপনি প্রতিদিন ১০ পয়েন্টস পেতে থাকবেন,যখন সে অ্যাপটি ব্যবহার করবে। তাই এখনই শুরু করুন। প্রতিদিন কাজ করতে মাএ ২৬ MB খরচ হবে আর টাকা পাবেন ৫০-৫০০

     clixsense থেকে আয়

    উইকিপিডিয়া অনুসারে আনুমানিক ১৯৯৭ সালে PAID TO CLICK (PTC) নামে একটি ইনকাম পদ্ধতি শুরু করা হয় কিছু ওয়েবসাইটে। এর কয়েক বছর পর থেকে অনেক পিটিসি

    ওয়েবসাইট তৈরি হয়। যেমন- Neobux, Paidverts, ense ইত্যাদি ইত্যাদি। এগুলোর মধ্যে আবার অনেক ওয়েবসাইট ছিল। ভুয়া। যেখানে একটি অ্যাকাউন্ট করে প্রতিদিন কিছু সংখ্যক ক্লিক করলে মাসে ৪০-৫০ ডলার ইনকামের সুযােগ দেওয়া হত। এবং এই অ্যাকাউন্টের সাথে অন্য অ্যাকাউন্ট রেফারেল হিসেবে দিলে ইনকাম আরও একটু বেশি হতাে। আবার এই অ্যাকাউন্টে সিলভার, গোল্ডেন, প্লাটিনাম ইত্যাদি নামে মেম্বারশিপ প্রায় ৫- ৫০০ ডলার পর্যন্ত ডিপােজিট করে অ্যাকাউন্ট করলে প্রতিদিন ইনকাম একটু বেশি হতাে। এ অবস্থায় অনেকেই বেশি বেশি করে ইনভেস্ট করত বেশি উপার্জনের জন্য। এভাবে যখন চলতে থাকে তখন কিছু ওয়েবসাইট মানুষের টাকা এভাবে নিয়ে বন্ধ হয়ে যায়। মানুষ হয়ে যায় প্রতারণার শিকার আর এভাবেই আপনারাও বিশ্বাস হারিয়েছেন। যা-ই হােক, বর্তমানে অ্যাপস-এর ইনকামের ব্যাপারটিও প্রায় একই। অ্যাপস সম্পর্কে বেশিকিছু লিখতে ইচ্ছুক নই। কারণ আমি একজন এক্সপার্ট হয়ে এক লাইনে বলতে চাই 'বর্তমানে অধিকাংশ অ্যাপস-এর ইনকামের ধান্দা মানে লেখাপড়া নষ্ট ছাড়া আর কিছু না। একজন ফ্রিল্যান্সার হতে গেলে, ল্যাপটপ বা কম্পিউটার অবশ্যই প্রয়ােজন।

     কাজ না করে ইনকাম বিকাশে প্রতিদিন

    একটি একাউন্ট করে ১০০০ টাকা বিকাশে নিন।

     একটি একাউন্ট করুন সাথে সাথে বিকাশে টাকা নিন। টাকা সকলে অবশ্যই পাবেন তাই এমন সুযোগ কেউ মিস করবেন না। 

    যা যা করতে হবে আপনাকেঃ

    ১| প্রথম Playstore গিয়ে Handy Pick লিখে search করুন তারপর ডাউনলোড করুন।

    ২| ভিডিও দেখানো অনুসারে একাউন্ট করুন

    ৩| রেফার জায়গায় ৬ সংখ্যার কোড চাইবে S4K65U এই কোডটি সেখানে দিয়ে দিন ভিডিও দেখানো মত তাহলে আপনি ১০০০ টাকা বোনাস পাবেন। 

    ৪ | তারপর বিকাশে পেমেন্ট নিন সাথে সাথে।

     কিভাবে online আয় করা যায়

    অনলাইনে টাকা আয় করে আজ অনেক এ নিজে সাবলম্বী হয়ে ওঠছে । বেকারত্ব, গৃহিণী, ছাত্র ছাত্রী, এরাই সাধারণত অনলাইনে বিজনেস এর দিকে বেশি ঝুকছে।। 

    তারা নতুন উদ্যোগক্তা হয়ে ওঠছে । অনেকে আবার সফল 

    হয়ে ওঠছে দিন দিন।। অনলাইনে টাকা আয় করার বিভিন্ন উপায় থাকে। যেমন 

     উদ্যোগক্তা হয়ে ঃ দেশীয় পণ্যের উদ্যোগক্তা হয়ে আজ 

    অনেকেই অনলাইনে টাকা টাকা আয় করছে। এবং সফল হয়ে ওঠছে । এভাবে অনেক এ আবার নতুন করে স্বপ্ন দেখছে সফল হওয়ার। 

    পেজ বা গ্রুপ এর মাধ্যমে ঃ ফেসবুকে পেজ বা গ্রুপ খুলে অনেকে ই ব্যবসায় সফল হচ্ছে। 

    ইউটিউব চ্যানেল খুলেঃ আপনার মধ্যে যদি ভিডিও বানানো র কৌশল থাকে বা দক্ষতা থাকে তাহলে 

    ইউটিউব চ্যানেল খুলে ভালো পরিমান আয় করা যায়।

    ইউটিউব বেশ জনপ্রিয় মাধ্যম।

    ইউটিউব থেকে টাকা কামানোর উপায় 

    গুগলে এডসেন্সের মাধ্যমে বিজ্ঞাপন দিয়ে।

    Affiliate marketing এর মাধ্যমে প্রচার করে। 

    sponsorship করে। 

    ব্লগ এর মাধ্যমে ঃ ব্লগ ২০১৯ সাল থেকে সবচেয়ে জনপ্রিয় এবং লাভজনক উপায় । ব্লগ তেৈরি করে বিভিন্ন উপায় এ ইনকাম করতে পারে। 

    যেমন affiliate marketing

    Advertising এর মাধ্যমে । 

    এছাড়াও আরও অনেক উপায় আছে অনলাইন থেকে আয় করার। 

    ptcএর ওয়েবসাইট এর মাধ্যমে আবার অনেক এ অনলাইনে টাকা আয় করছে।। 

    অনলাইনে টাকা আয় করা র আরও অনেক উপায় আছে ।। কিন্তু তার জন্য দরকার দক্ষতা বৃদ্ধি।

     ডলার ইনকাম করার উপায়  

    সিপিএ মার্কেটি এর পূর্ণ অর্থ হচ্ছে Cost Per Action সহজভাবে ধরুন কোন কিছু ডাউনলােড, শেয়ার, কোন সাইটে রেজিস্ট্রেশান ইত্যাদি। এফিলিয়েট মার্কেটিং-এর একটি গুরুত্বপূর্ণ পার্ট হচ্ছে সিপিএ মার্কেটিং। এটা নতুন একটি এডভাটাইজিং পেমেন্ট মডেল যাতে কিছু কাজের উপর নির্ভর করে পেমেন্ট দেয়া হয়। CPA মার্কেটিং এ আপনাকে পে করা হবে কোন প্রােডাক্ট সেল করার বিনিময়ে নয়, নিদিষ্ট একটি কাজের বিনিময়ে। এগুলােকে সহজ ভাষায় একশন (Action) বলে

    কেন করবেন সিপিএ মার্কেটিং?

    অনলাইন মার্কেটার হিসেবে আপনি বিভিন্ন ধরনের মার্কেটিং করতে পারেন। যেমন অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং, সিপিএ মার্কেটিং, ইউটিউব মার্কেটিং ইত্যাদি। অনলাইন মার্কেটার হতে হলে আপনাকে অনলাইনের অনেক বিষয় সম্পর্কে ভালাে মানের ধারনা রাখতে হবে যেটা আসলে অনলাইনে নতুন একজনের পক্ষে কখনােই সম্ভব নয়। নিজের নিস সাইট বা অন্য কোন মেথডে কোন অনলাইন প্রমােশন করা অনেকটাই হাই লেভেলের কাজ যেটা করার জন্য যথেষ্ট অভিজ্ঞতা

    দরকার।

    সিপিএ মার্কেটিং থেকে কি রকম আয় করা সম্ভব? এটা নির্ভর আপনার কাজ এর উপর। তবে নিয়মিত এবং নিয়ম মেনে কাজ করলে হাজার ডলার এর উপর আয় করা সম্ভব মাসে। নিয়ম মেনে কাজ না করলে এক টাকাও আয় সম্ভব না। আপনি যদি ৩ ডলার একটি অফার নিয়ে কাজ করেন তাহলে দিন এ যদি ২০ টি Action Complete করাতে পারেন তাহলে দিনে ৩০ডলার ইনকাম করতে পারবেন এবং মাসে 900 ডলার ইনকাম করতে পারবেন।

    Tag: Clipclaps থেকে আয়, vodi app দিয়ে টাকা আয়, clixsense থেকে আয়, কাজ না করে ইনকাম বিকাশে প্রতিদিন, কিভাবে online আয় করা যায় ডলার ইনকাম করার উপায়,  বাড়িতে বসে টাকা ইনকাম


    0/Post a Comment/Comments

    Previous Post Next Post
    আমাদের ফেসবুক পেইজে যুক্ত হতে ক্লিক করুন
    chrome-extension://oilhmgfpengfpkkliokdbjjhiikehfoo/img/semstorm-32.png