রেফার করে ও বিজ্ঞাপন দেখে টাকা আয় | গল্প কবিতা লিখে আয় বিকাশে পেমেন্ট | মোবাইলে টাকা আয়ের সহজ উপায়

রেফার করে ও বিজ্ঞাপন দেখে টাকা আয় | গল্প কবিতা লিখে আয় বিকাশে পেমেন্ট | মোবাইলে টাকা আয়ের সহজ উপায়

 

রেফার করে আয়,  বিজ্ঞাপন দেখে টাকা আয়, কিভাবে অনলাইনে টাকা ইনকাম করা যায়, কিভাবে অনলাইনে আয় করা যায় , গল্প কবিতা লিখে আয় বিকাশে পেমেন্ট , বিকাশে টাকা ইনকাম, মোবাইলে টাকা আয়ের সহজ উপায়

    কিভাবে অনলাইনে আয় করা যায়

    টাইম অফ বিডির পক্ষ থেকে আপনাদের সবাইকে জানাই শুভেচ্ছা এবং সালাম আসসালামু আলাইকুম রাহমাতুল্লাহি ওয়া বারাকাতুহু। আপনারা সবাই কেমন আছেন ? আশা করি সবাই আল্লাহর রহমতে ভাল আছেন। আমিও আল্লাহর রহমতে ভালো আছি। আপনারা অনেকেই হয়ত জানেননা ফেসবুক এবং অনলাইন থেকে বিভিন্ন উপায়ে টাকা ইনকাম করা যায়। আর তাই আজকে আমাদের পোস্টে আমরা এগুলো সম্পর্কে আলোচনা করব।আমাদের আজকের এই পোষ্ট টি তৈরি করা হয়েছে কিভাবে অনলাইন থেকে ইনকাম করা যায় এর সম্পর্কে । আমাদের আজকের এই পোস্টের যা যা থাকছে সেগুলো হলোরেফার করে আয়, বিজ্ঞাপন দেখে টাকা আয়, কিভাবে অনলাইনে টাকা ইনকাম করা যায়, কিভাবে অনলাইনে আয় করা যায় , গল্প কবিতা লিখে আয় বিকাশে পেমেন্ট , বিকাশে টাকা ইনকাম, মোবাইলে টাকা আয়ের সহজ উপায় । আশা করি আপনারা পুরো পোস্টটি ধৈর্য্য সহকারে পড়বেন এবং সঠিক তথ্যটি পাবেন।


    রেফার করে আয়

    প্রিয় পাঠকবৃন্দ আপনারা অনেকেই জানতে চেয়েছেন রেফার করে কিভাবে টাকা আয় করা যায় তাদের জন্য আজকে আমাদের এই পোস্টটি তৈরি করা হয়েছে। বিভিন্ন ধরনের অ্যাপ আছে যেগুলোর কোড দেয়া থাকে এই কোডগুলো অন্যকে রেফার করলে টাকা পাওয়া যায়। যেমন বিকাশ অ্যাপ থেকে কোড কাউকে রেফার করলে বিকাশ অ্যাপ থেকে টাকা পাওয়া যায় তেমনি রিং আইডি থেকে কোড রেফার করলে রিং আইডি থেকে অনলাইনে টাকা পাওয়া যায়।এভাবে রেফার করে অনলাইন থেকে টাকা আয় করা যায়।

      বিজ্ঞাপন দেখে টাকা আয় 

    অ্যাফিলিয়েট অ্যাডভারটাইজিং এর নাম অনেকেই শুনে থাকতে পারেন। অনেকসময় ফেসবুক স্ক্রল করে গেলে নিউজফিডে বিভিন্ন অ্যাড আসে, যার নিচে ছোট্ট করে “স্পনসরড” লেখা থাকে। এটিই হচ্ছে অ্যাফিলিয়েট অ্যাডভারটাইজিং।

    অ্যাফিলিয়েট অ্যাডভারটাইজিং প্রোগ্রাম খুঁজে নিয়ে এর জন্য সাইন আপ করলে আপনাকে দেয়া হবে অনন্য একটি আইডি, সঙ্গে থাকবে আপনার অ্যাডভারটাইজিং সম্পর্কিত বিভিন্ন বিজনেস ম্যাটেরিয়াল দেয়া হবে। এসব বিভিন্ন ইউজারদের দ্বারা জেনারেটের মাধ্যমে আপনার অ্যাকাউন্টে অর্থ জমা হতে থাকবে।

    অ্যাফিলিয়েট অ্যাডভারটাইজিং প্রোগ্রামের জন্য আলাদা একটি ফেসবুক অ্যাকাউন্ট খুলে ফেলুন। মনে রাখতে হবে, প্রতিটি বিজ্ঞাপনের জন্য আলাদা আলাদা ফেসবুক অ্যাকাউন্ট খোলা উচিত। এর ফলে ইউজাররা নিজেদের পছন্দ মত বিজ্ঞাপন খুঁজে নিতে পারবে আর আপনার আয় করার পুরো কাজটাই দ্রুত সম্পন্ন হবে।

    আপনার বিজ্ঞাপন যতবার মানুষ দেখবে, ততবারই আপনার আয় বাড়তে থাকবে। সুতরাং বিজ্ঞাপনের প্রোমোশনের বিষয়টাকে অগ্রাধিকার দিতে হবে যেন আপনার পোস্টে ক্লিক করে অ্যাফিলিয়েট থেকে কিছু কেনামাত্র আপনি আয় করা শুরু করতে পারেন।

    কিভাবে অনলাইনে টাকা ইনকাম করা যায়

    লেখালেখির মাধ্যমে অনলাইন থেকে টাকা আয় করা যায় এবং এটাকে ব্লগিং বলা হয়। আমরা আজকে আমাদের এই পোস্টে ব্লগিং সম্পর্কে আলোচনা করেছি। আপনার পুরো পোস্টটি ধৈর্য্য সহকারে পড়বেন আশা করি আপনারা উপকৃত হবেন।

    ব্লগ কি?

    এক কথায় বলতে গেলে ব্লগ হলো, ইন্টারনেটে যে কোন বিষয় নিয়ে লেখালেখি করা। যে ব্যক্তি রা অনলাইনে লেখালেখি করে তাদেরকে ব্লগার বলা হয়। একজন ব্লগার প্রতি মাসে 20 হাজার টাকা থেকে শুরু করে কয়েক লক্ষ টাকা পর্যন্ত ইনকাম করতে পারে খুব সহজেই।

    ব্লগিং ব্যবসাটি খুবই মজার একটি ব্যবসা। এখানে একবার লেখালেখি করলে সেখান থেকে সারাজীবন ইনকাম করা সম্ভব হয়।

    কিভাবে ব্লগিং শুরু করবো ?

    আপনি যদি ব্লগিং করে অনলাইন থেকে টাকা আয় করতে চান তাহলে ব্লগ সম্পর্কে ভালোভাবে ধারণা রাখতে হবে। ব্লগ কি কিভাবে কাজ করে এই সম্পর্কে যদি আপনি ভালভাবে না জানান তাহলে ব্লগিং করে বেশিদূর অগ্রসর পারবেন না।

    এখন কথা হল কিভাবে ব্লগিং শুরু করবো , ব্লগিং শুরু করার জন্য আপনাকে মনস্থির করতে হবে আপনি কি বিষয় নিয়ে অনলাইনে লেখালেখি করতে চাচ্ছেন।

    ব্লগিং করার পূর্বে আপনাকে কয়েকটি বিষয় খেয়াল রাখতে হবে সেগুলো হলোঃ

    আপনি যে বিষয় নিয়ে ব্লগিং করতে চাচ্ছেন সেটি বর্তমান পেক্ষাপটে চাহিদা কেমন

    ব্লগিং-এর বিষয়টি সম্পর্কে আপনার ধারণা আছে কিনা

    যে বিষয়ে আপনি লেখালেখি করছেন সে বিষয়ে কেমন কম্পিটিশন রয়েছে

    আপনি যে বিষয়টি নিয়ে ব্লগিং করতে চান সে বিষয়ে আপনার ইন্টারেস্ট কেমন

    ব্লগিং করতে গেলে ব্লগিং এর বিষয়টি সম্পর্কে ইন্টারেস্ট থাকাটা খুব জরুরি। কেননা আপনি যে বিষয়টি নিয়ে লেখালেখি করবেন বা ব্লগিং করবেন সে বিষয়টি সম্পর্কে আপনার যদি ইন্টারেস্ট না থাকে তাহলে কাজ করে মজা পাবেন না।

    ব্লগিং কোথায় থেকে শিখব ?

    আপনার যদি ব্লগিং করে টাকা আয় করার ইচ্ছা থাকে তাহলে সে ইচ্ছাটুকুই আপনাকে ব্লগিং শেখাতে 50% কাজ করবে, বাকিটা আপনার রিসার্স এবং কাজের উপর নির্ভর করবে।

    ব্লগিং শিখে অনলাইনে আয় করতে দুই ভাবে শিখতে পারেনঃ

    ১। ফ্রি ভাবেঃ

    ফ্রিতে ব্লগিং শিখতে হলে বিভিন্ন ধরনের ভিডিও টিউটোরিয়াল এবং ব্লগিং এর জন্য বিভিন্ন ফ্রী কোর্স গুলো আপনাকে আয়ত্ত করতে হবে। এর জন্য গুগল এবং ইউটিউব তো রয়েছেই। আপনি যদি কিছুদিন প্যাকটিস করেন তাহলে আপনি ফ্রিতেই ব্লগিং শিখে নিতে পারবেন এতে আপনার সময় একটু বেশি লাগতে পারে। তবে ফ্রিতে ব্লগিং শিখলে আপনি পেইড কোর্স এর চেয়ে অনেক বেশী কিছু শিখতে পারবেন।

    তবে আপনি যদি মনে করেন আপনি অল্প সময়ে ব্লগিং শিখে অনলাইন থেকে আয় করতে চান তাহলে পেড কোর্স এর সাহায্য নিতে পারেন।

    ২। পেইড কোর্স

    আপনার আশেপাশে বিভিন্ন ট্রেনিং সেন্টার রয়েছে যেখানে ব্লগিং শেখানো হয়। তবে কোন ট্রেনিং সেন্টারে কতটুকু শিখানো হয় সেটি আপনাকে ভালোভাবে খোঁজখবর নিয়ে জেনে নিতে হবে।

    কেননা আপনি যেখান থেকে ট্রেনিং করবেন সেখান থেকে ট্রেনিং করার পর আপনি যদি অনলাইন কাজ করতে না পারেন , তাহলে সে শেখার কোনো দামই নেই।

    ব্লগিং করতে কি কি লাগে ?

    ব্লগিং করার জন্য আপনার একটি কম্পিউটার অথবা একটি ল্যাপটপ থাকতে হবে। আর যদি আপনার কাছে ভালো মানের একটি স্মার্টফোন থাকে তাহলেও কাজ চালিয়ে নিতে পারবেন কিন্তু কষ্ট হবে। 

    ব্লগিং করার জন্য যে জিনিস গুলো প্রয়োজনঃ

    কম্পিউটার বা লেপটপ

    ইন্টারনেট কানেকশন

    একটি ওয়েবসাইট (Domain + Hosting )

    গুগল এডসেন্স বা এফিলিয়েট লিং

    ব্লগিং করে কত টাকা আয় করা যায় ?

    ব্লগিং করে কত টাকা আয় করা যায় এর নির্ধারিত কোন সীমানা নেই। ব্লগিং করে অনলাইনে আয় এমন একটি মাধ্যম আপনি যত ইচ্ছা তত আয় করতে পারবেন। আপনি যেমন কাজ করবেন, যতটা কাজ করবেন তত ইনকাম করতে পারবেন। তবে হ্যাঁ ব্লগিং সেকশনে আপনি নিত্য নতুন কোন আইডিয়া নিয়ে কাজ করতে এলে খুব দ্রুত সফল হতে পারবেন।

      গল্প কবিতা লিখে আয় বিকাশে পেমেন্ট

    গল্পকবিতা লেখার মাধ্যমে আমরা অনলাইনে যে লেখালেখির কাজ করি এগুলোকে ব্লগ বলা হয় এটি একটি অনলাইন সাইট। এই ব্লগেকবিতা গল্প এছাড়া সাম্প্রতিক বিষয় গুলো লেখার মাধ্যমে আমরা অনলাইন থেকে প্রচুর টাকা ইনকাম করতে পারি।আপনারা পুরো পোস্টটি ধৈর্য্য সহকারে পড়বেন তাহলে বুঝতে পারবেন কিভাবে গল্প কবিতা লিখে আয় করা যায়।

     কারো জন্য ব্লগ এমন একটা টেকনোলজি যেখান থেকে আপনি অনলাইন আয় করতে পারবেন এবং অনেকের জন্য ব্লগ হলো ইন্টারনেটে কিছু জানার বা শেখার মাধ্যম।

    ব্লগ থেকে আয় করার কথা জানার আগে আপনার ব্লগ

    বলতে কি বোঝায়, ব্লগ কিভাবে বানাতে হয় আর ব্লগ থেকে অনলাইনে ইনকাম কিভাবে করা যায়, এই জিনিস গুলির ওপরে আপনার পুরো জ্ঞান থাকতে হবে।

    তাহলে চলুন আগে আমরা ব্লগ মানে কি তা জেনে নেই।

    সোজা আর সহজ ভাষায় বলতে গেলে , ব্লগ আপনার একটা ডায়েরির মতন। এমন একটা ডায়েরি যেখানে আপনি আপনার মন মতো যা খুশি লিখতে পারবেন।


    আপনি, গল্প, কবিতা, এস.এম.এস., পত্রিকা এবং আর্টিকেল বা যেকোনো জিনিসের বিষয়ে লিখতে পারবেন। ব্লগ লেখার জন্য আপনার কিছু জিনিসের প্রয়োজন  হবে। এই, দরকারি জিনিস গুলো হলো – একটি কম্পিউটার বা লেপটপ , ইন্টারনেট সংযোগ , সাধারণ কম্পিউটার জ্ঞান এবং আপনি যে বিষয়ে আর্টিকেল লিখবেন তার সঠিক জ্ঞান থাকা।

    ব্লগ সফল করার জন্য আর ব্লগ লিখে টাকা আয় করার জন্য আপনার ব্লগে প্রচুর traffic বা ভিসিটর্স এর প্রয়োজন হবে।আর আপনি ব্লগে ফ্রি traffic বা ভিসিটর্স কেবল Google এবং yahoo সার্চ আর social media থেকেই পাবেন।

    একটি ফ্রি ব্লগ দুই ভাবে বানানো যাবেঃ

       একঃ “Self hosted WordPress blog” সেল্ফ হোস্টেড ওয়ার্ডপ্রেস ব্লগে, আপনার অল্প টাকা খরচ হবে। 

      দুইঃ “Free blogger blog” ফ্রী ব্লগার ব্লগ বানানোর জন্য আপনার প্রয়োজন হবে একটি গুগল বা জিমেইল একাউন্ট এর। কারণ, blogger.com যেখানে গিয়ে আপনি একটা ফ্রি ব্লগ বানাবেন সেটা Google এর একটি product বা service .আর, তাই blogger.com এ ব্লগ বানানোর জন্য আপনার প্রথমে একটি গুগল ID এবং password এর প্রয়োজন হবে। আশা করি আপনার জিমেইল একাউন্ট আছেই, আর যদি নেই তাহলে আপনি Gmail.com এ গিয়ে নিজের গুগল একাউন্ট বানাতে পারবেন।

    এখন, blogger.com ওয়েবসাইট টিতে যাওয়ার পর, আপনি প্রথম পেজেই একটি লিংক দেখবেন “Create A  Blog” বলে। ব্যাস, এরপর আপনি লিংক টাতে ক্লিক করুন আর তারপর নিজের জিমেইল একাউন্ট এর ID এবং password দিয়ে লগইন করুন। লগইন করার পর আপনি ব্লগার setup page দেখতে পাবেন। এখন আপনি setup page থেকে “Create Google plus account” এ ক্লিক করুন।

    এরপর গুগল প্লাস একাউন্ট বানানোর পর “Continue to blogger” লিংক এ ক্লিক করুন।

    এখন আপনি নিজের ব্লগার dashboard দেখবেন।

    ব্লগার dashboard এ লগইন হওয়ার পর “Create a blog” লিংক দেখবেন যেখানে ক্লিক করে আপনি আপনার ব্লগ বানাতে পারবেন।

    আশাকরি, ব্লগার ব্লগ কিভাবে বানানো যায় এর সাধারণ জ্ঞান তা আমি আপনাকে দিতে পারলাম।

    ধন্যবাদ।

     বিকাশে টাকা ইনকাম

    প্রিয় পাঠকবৃন্দ আপনারা অনেকেই জানতে চেয়েছেন বিকাশে টাকা ইনকাম করা যায় কিনা এ সম্পর্কে।আর তাই আমরা আজকের এই পোষ্ট টি তৈরি করেছি বিকাশে কিভাবে টাকা ইনকাম করা যায় এ সম্পর্কে আলোচনা নিয়ে।https://bka.sh/RFkOHR9| নতুন বিকাশ অ্যাপ থেকে।

    নিজের একাউন্ট খুলুন মিনিটেই, শুধুমাত্র জাতীয় পরিচয়পত্র দিয়ে। কোথাও যেতে হবে না! আর অ্যাপ থেকে একাউন্ট খুলে প্রথম লগ ইনে পাবেন ১০০ টাকা বােনাস! সাথে আছে আরাে অ্যাপ অফার: প্রথম বার। ২৫ টাকা রিচার্জে ৫০ টাকা বােনা Price BDT 1000 150

    নিজের একাউন্ট খুলুন মিনিটেই, শুধুমাত্র জাতীয় পরিচয়পত্র দিয়ে। কোথাও যেতে হবে না! আর অ্যাপ থেকে একাউন্ট খুলে প্রথম লগ ইনে পাবেন ১০০ টাকা বােনাস! সাথে আছে আরাে অ্যাপ অফার: - প্রথম বার ২৫ টাকা রিচার্জে ৫০ টাকা বােনাস।

    https://bka.sh/RFKOHR9I

    নতুন বিকাশ অ্যাপ থেকে নিজের একাউন্ট খুলুন মিনিটেই, শুধুমাত্র জাতীয় পরিচয়পত্র দিয়ে। কোথাও যেতে হবে না!

    আর অ্যাপ থেকে একাউন্ট খুলে প্রথম লগ ইনে পাবেন ১০০ টাকা বােনাস! সাথে আছে আরাে অ্যাপ অফার: - প্রথম বার ২৫ টাকা রিচার্জে ৫০ টাকা বােনাস। - সেন্ড মানি ও পে বিল এ কোনাে চার্জ নেই

     মোবাইলে টাকা আয়ের সহজ উপায় 

    অনলাইন হতে আয় করার নিশ্চিত এবং সহজ কিছু উপায় রয়েছে। অনলাইন হতে আয় করার জন্য শুধুমাত্র আপনার মেধা, শ্রম ও সময়ের প্রয়োজন। আপনি এই তিনটি জিনিস সঠিকভাবে কাজে লাগাতে পারলে ঘরে বসে মোবাইলের মাধ্যমে অনলাইন হতে সহজে টাকা আয় করতে পারবেন।

    মোবাইলে অনলাইনে আয়ঃ

    আপনি মোবাইল দিয়ে অনলাইনে আয় করতে পারবেন কি না, সে বিষয়টি আমি শুরুতে ক্লিয়ার করে নিচ্ছি। কারণ অধিকাংশ লোকের কাছে কম্পিউটার বা ল্যাপটপ না থাকার কারনে অনলাইন কাজ করতে চায় না। তারা মনেকরে কম্পিউটার ছাড়া মোবাইল দিয়ে অনলাইন হতে আয় করার সম্ভব নয়। কিন্তু আপনি হয়ত জানেন না যে, কম্পিউটার ছাড়াও শুধুমাত্র মোবাইল দিয়ে বিভিন্ন উপায়ে ঘরে বসে অনলাইনে সহজে আয় করা যায়। আপনার নিকট যদি একটি এন্ড্রয়েড মোবাইল থাকে তাহলে আপনি সেই স্মার্টফোন দিয়ে অনলাইন হতে মাসে কিছু টাকা আয় করে নিতে পারবেন।

    অনলাইনে আয় করার নিশ্চিত উপায়ঃ

    YouTube হতে টাকা আয়ঃ

    অনলাইন থেকে টাকা উপার্জনের সবচেয়ে সহজ পথ হচ্ছে YouTube. এখান থেকে যে কোন বয়সের লোক খুবই সহজে টাকা উপার্জন করতে

     পারেন। 

    ব্লগিং করে বা ব্লগে আর্টিকেল লিখেঃ

    আপনি গুগল ব্লগারে কিংবা ওয়ার্ডপ্রেসে বিনা মূল্যে একটি ব্লগ তৈরী করে নিতে পারেন। গুগল ব্লগার সম্পূর্ণ ফ্রিতে একটি ব্লগ তৈরি করার সুযোগ দিচ্ছে। তাছাড়া গুগল ব্লগার দিয়ে ব্লগ তৈরি করা খুব সহজ হওয়ায় আপনি চাইলে আপনার মোবাইল দিয়ে মাত্র ৫ মিনিটে নিজের একটি ব্লগ তৈরি করে নিতে পারেন। 

    Freelancing – একজন লেখক হয়েঃ

    অনলাইনে আয়ের ক্ষেত্রে বর্তমানে Freelancing একটি জনপ্রিয় প্লাটফর্ম। Freelancing করে বর্তমানে বাংলাদেশের হাজার হাজার লোক ঘরে বসে অনলাইন হতে টাকা আয় করছে। 

     Adsense থেকে টাকা উপার্জনঃ

    Adsense হচ্ছে বিশ্বের সবচেয়ে বড় বিজ্ঞাপনের (Advertisement) Program. এটি গুগল কর্তৃপক্ষ সয়ং নিজে পরিচালনা করছে।

    প্রশ্ন উত্তরের মাধ্যমে (Ask And You Answer):

    আপনি যদি বিভিন্ন বিষয়ে দক্ষ হয়ে থাকেন, যেমন ধরুন - Math, English, Physics, Biology, Humanities ইত্যাদি। তাহলে আপনি প্রশ্ন উত্তর প্রদানের মাধ্যমে ইন্টারনেটে অন্যের বিভিন্ন সমস্যার সমাধান করে দিতে পারেন। 

    EBAY and AMAZON এ আপনার Products বিক্রির মাধ্যমেঃ

    আপনারা হয়তো জানেন যে, ইন্টারনেট এর মাধ্যমে পন্য কেনা কাটার জন্য জনপ্রিয় ওয়েবসাইট হচ্ছে Ebay and Amazon. এখানে লোকজন তাদের বিভিন্ন ধরনের Products বিক্রি করার জন্য বিজ্ঞাপন দিয়ে থাকেন।

    গ্রাফিকস ডিজাইনঃ

    অনলাইনে গ্রাফিকস ডিজাইনের চাহিদা প্রচুর পরিমানে রয়েছে। অনলাইনে ঘরে বসে আয়ের ক্ষেত্রে গ্রাফিকস ডিজাইন একটি ভালো উপায়। যারা এই কাজে দক্ষ, তারা বিভিন্ন ডিজাইন বিষিয়ক অনলাইন মার্কেটপ্লেসগুলোতে তাদের নিজেস্ব ডিজাইন দিয়ে রাখেন।

    ডাটা এন্ট্রিঃ

    অনলাইনে সহজ কাজগুলোর মধ্যে একটি হচ্ছে ডাটা এন্ট্রি। এ ক্ষেত্রে অবশ্য আয় খুব কম। তবে এ ধরনের কাজ অটোমেশনের কারণে এখন খুব কম পাওয়া যায়।

    পিটিসিঃ

    অনলাইনে অনেক ওয়েবসাইট আছে যেগুলোর বিজ্ঞাপনে ক্লিক করলে টাকা দেওয়া হয়। এ ধরনের সাইটকে পিটিসি সাইট বলে।শ

    Tag:রেফার করে আয়,  বিজ্ঞাপন দেখে টাকা আয়, কিভাবে অনলাইনে টাকা ইনকাম করা যায়, কিভাবে অনলাইনে আয় করা যায় , গল্প কবিতা লিখে আয় বিকাশে পেমেন্ট , বিকাশে টাকা ইনকাম, মোবাইলে টাকা আয়ের সহজ উপায় 



    0/Post a Comment/Comments

    Previous Post Next Post
    আমাদের ফেসবুক পেইজে যুক্ত হতে ক্লিক করুন
    chrome-extension://oilhmgfpengfpkkliokdbjjhiikehfoo/img/semstorm-32.png